৭ই অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২২শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধু’র ধান কাটা হবে আগামী ২৬ এপ্রিল

নগর বাংলা২৪ ডট কম:
২৬
header

নিউজ ডেস্ক।।

শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধু’ শস্যচিত্রটি গিনেজ ওয়ার্ল্ড রেকর্ড গড়ার পর এবার সেই শস্য কাটতে যাচ্ছে আয়োজক কমিটি। বিশ্বরেকর্ডে স্থান করে নিয়ে ইতিহাস গড়া বঙ্গবন্ধুর চিত্রটি এখন সবচেয়ে বড় শস্যচিত্র। বগুড়ার শেরপুর উপজেলার ভবানীপুর ইউনিয়নের বালেন্দা গ্রামে ধানের ক্ষেতে তৈরিকৃত শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধু ক্ষেতের একশ’ বিঘা জমির ধান কাটবে আগামী ২৬ এপ্রিল।

গাঢ় বেগুণীগাছে বেগুনী ও সবুজ ধানগাছে সোনালী রঙের ধান শীষে ভরে উঠেছে। পুরো ধানের মাঠ বাতাসে দুলছে উপর থেকে দেখলে মনে হবে বঙ্গবন্ধুর চিত্রটিও দুলছে। পুরো মাঠে ধানের শীষ দুলছে। বিশ্বরেকর্ড গড়ার পর এবার ধান কাটা সময় হয়ে পড়েছে। ভাল মানের ধান দেখা যাচ্ছে জমিতে। রোদ পড়ে চকচক করছে ধানের শীষগুলো।

এর আগে চলতি বছরের ২৯ জানুয়ারি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে উচ্চ ফলনশীল দুই ধরণের ধানের চারা রোপনের মাধ্যমে এই কর্মযজ্ঞের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ঘোষণা করেছিলেন। শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধুর আয়তন ছিল ১২ লাখ ৯২ হাজার বর্গফুট। শস্যচিত্রের দৈর্ঘ্য ৪শ’ মিটার এবং প্রস্থ ছিল ৩শ’ মিটার। শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধু প্রথমবারের মতো গ্রিনেজ বুকে স্থান পেয়ে নতুন ইতিহাস সৃষ্টি করেছে বাংলাদেশের জন্য। এই কাজের জন্য ইতিমধ্যে ন্যাশনাল এগ্রিকেয়ার এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক কে এস এম মোস্তাফিজুর রহমানকে সম্মাননা প্রদান করা হয়েছে বলে তিনি জানিয়েছেন।

ন্যাশনাল এগ্রিকেয়ার এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক কে এস এম মোস্তাফিজুর রহমান জানান, আগামী ২৬ এপ্রিল আনুষ্ঠানিকভাবে ধানকাটা হবে। যদিও বেশ কয়েকদিন আগেই ধানকাটার উপযোগি হয়েছে। ধানকাটার পর সেগুলো ন্যাশনাল এগ্রিকেয়ারের কাহালুর প্রসেসিং সেন্টারে নেওয়া হবে।পরে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে সে ধানগুলো কি করা হবে।

After Related Post