১৮ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ৩রা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
কুমিল্লা পুলিশ লাইন্স লাইব্র্রেরী উদ্বোধন করেনঃ এমপি বাহারলালমাইয়ে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে উপজেলা ছাত্রলীগের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিতবিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণঃ অশ্লীল ছবি ধারণ করে চাঁদা আদায়, প্রেমিকসহ গ্রেফতার ২নোয়াখালীতে ভেঙে পড়ল নির্মাণাধীন বিদ্যালয়ের ছাদকুমিল্লার মুরাদনগরে জাতীয় শোক দিবসে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিতবাসার কাচের জানালায় ও প্লাস্টিকের বোতলে প্রকৃতির সব নান্দনিক দৃশ্যকুমিল্লার আমতলী থেকে ২৪ কেজি গাঁজাসহ ২ মাদক কারবারি আটককুমিল্লার ক্যান্টনমেন্ট থেকে গাঁজাসহ ০৩ জন গ্রেফতারচক্রান্তকারীরা চেতনা নষ্ট করার চেষ্টা করছেঃ এমপি বাহারনবজাতক ছিনিয়ে নেওয়ার হুমকি, তৃতীয় লিঙ্গের ৪ জন কারাগারে

শপথ নেওয়ার পর আমার প্রথম কাজ হবে দুর্নীতির শ্বেতপত্র প্রকাশ করাঃ রিফাত

নগর বাংলা২৪ ডট কম:
৭৬
header

নেকবর হোসেন।।

কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন নৌকা প্রতীকের আরফানুল হক রিফাত। নৌকা প্রতীকে তাঁর প্রাপ্ত মোট ভোটের সংখ্যা ৫০ হাজার ৩১০। জেলা শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণে রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয় থেকে এ তথ্য জানানো হয়।

আরফানুল হক রিফাত জয় ঘোষণার পর তাৎক্ষণিক এক প্রতিক্রিয়ায় বলেন, ‘আমি মেয়রের শপথ নেওয়ার পর আমার প্রথম দায়িত্ব হবে এ যাবত গত এক দশকে সিটি করপোরেশনে যত রকমের দুর্নীতি হয়েছে সব সেগুলোর শ্বেতপত্র প্রকাশ করা। আমি চাই আমি যখন থাকব না, আমিও যদি দুর্নীতি করে থাকি আমার বিরুদ্ধেও শ্বেতপত্র প্রকাশ করা হোক। কেউ যেন দুর্নীতি করতে না পারে।

এক প্রশ্নের জবাবে রিফাত বলেন, এই জায়গার মানুষ আমাকে লাইক দিয়েছে। এই রায় আমি মেনে নিয়েছি। আমি সন্তুষ্ট। এদিকে রিফাতের নিকটতম টেবিল ঘড়ি প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু পেয়েছেন ৪৯ হাজার ৯৬৭ ভোট। ঘোড়া প্রতীকে স্বেচ্ছাসেবক দলের সাবেক সভাপতি নিজাম উদ্দিন কায়সার পেয়েছেন ২৯ হাজারের বেশি ভোট। এর আগে বুধবার সকাল ৮টা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয়ে চলে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। নগরীর ২৭টি ওয়ার্ডের ১০৫টি কেন্দ্রে সাধারণ ভোটাররা দিনভর পছন্দের প্রতীকে ভোট দিয়েছেন। নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু করতে সারা দিনই আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের সতর্ক অবস্থানে দেখা গেছে।

কুসিক নির্বাচনে এবার মেয়র পদে লড়ছেন পাঁচজন। নৌকা প্রতীক নিয়ে মাঠে আছেন কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরফানুল হক রিফাত। বিএনপি থেকে বহিষ্কৃত ও কুসিকের সদ্য বিদায়ী মেয়র মনিরুল হক সাক্কু স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে লড়ছেন টেবিল ঘড়ি প্রতীক নিয়ে।

এ ছাড়া মেয়র পদে ঘোড়া প্রতীক নিয়ে শেষ পর্যন্ত প্রচার চালিয়েছেন মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সাবেক সভাপতি নিজাম উদ্দিন কায়সারের। আরেক স্বতন্ত্র প্রার্থী ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মো. রাশেদুল ইসলাম হাতপাখা ও কামরুল আহসান বাবুল হরিণ প্রতীক নিয়ে প্রচারে ছিলেন।

After Related Post