১লা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ভবনে এডিসের লার্ভা পাওয়ায় ৯ লাখ টাকা জরিমানা

নগর বাংলা২৪ ডট কম:
header

নগরবাংলা নিউজ ডেস্ক।।

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় ভবনে এডিসের লার্ভা পাওয়ায় ১৯টি মামলায় ৯ লাখ ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)। এছাড়া ৭টি নিয়মিত মামলা দায়ের করা হয়েছে।

রোববার (৬ নভেম্বর) নগরীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে এই জরিমানা করেছে ডিএনসিসি। মাসব্যাপী চলমান বিশেষ মশক নিধন কার্যক্রমের অংশ হিসেবে এই অভিযান চালানো হয়।

ডিএনসিসির অঞ্চল-৫ এর আওতাধীন মোহাম্মদপুরের তাজমহল রোড এলাকায় আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোতাকাব্বীর আহমেদ এডিস মশার প্রকোপ নিয়ন্ত্রণে বিশেষ মশক নিধন অভিযান ও ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। অভিযানে এডিসের লার্ভা পাওয়ায় ৮টি মামলায় ৪ লাখ ২০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয় এবং এডিস মশার প্রকোপ নিয়ন্ত্রণে জনগণকে সচেতন ও সতর্ক করা হয়। এছাড়াও এসময় সংশ্লিষ্ট সবাইকে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদান করা হয়।

এদিন অঞ্চল-১ এর আওতাধীন উত্তরা ৩ নম্বর সেক্টর এলাকায় আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. জুলকার নায়ন অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযানে এডিস মশার লার্ভা পাওয়ায় ৫টি মামলায় ১ লাখ ৮০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। এছাড়া এডিসের লার্ভা পাওয়ায় ৩টি নিয়মিত মামলা দায়ের করা হয়।

অঞ্চল-৯ ও ১০এর আওতাধীন ভাটারা ও আফতাবনগর এলাকায় আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জিয়াউল বাসেত অভিযান পরিচালনা করেন। এসময় এডিসের লার্ভা পাওয়ায় ৪টি মামলায় ১ লাখ ৯০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন তিনি।

ডিএনসিসির অঞ্চল-৩ এর আওতাধীন এলাকায় আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল্লাহ আল বাকী ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। অভিযানে ১টি নির্মাণাধীন ভবনে এডিসের লার্ভা পাওয়ায় ১টি মামলায় ১ লাখ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

ডিএনসিসির অঞ্চল-৪ এর আওতাধীন পাইকপাড়া ও কাজীপাড়া এলাকায় আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আবেদ আলী অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযানকালে প্রায় ১১০টি ভবন, স্থাপনা, জলাশয়, রেস্টুরেন্ট ও দোকানপাট পরিদর্শন করা হয়। এছাড়া ফুটপাত ও রাস্তায় মালামাল রেখে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করায় ৪টি মামলায় ৩০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

অঞ্চল-২ এর আওতাধীন মিরপুর মডেল থানা এলাকায় আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. জিয়াউর রহমান অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযানে লার্ভা পাওয়ায় ২টি মামলায় ২০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

এছাড়াও প্রতিটি এলাকায় সকালে লার্ভিসাইডিং ও বিকেলে ফগিং করা হয়। ডিএনসিসির সহকারী স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা করপোরেশনের ১০টি অঞ্চলের বিভিন্ন স্থানে ঘুরে ঘুরে লিফলেট বিতরণ করেন এবং মাইকিং করে জনসাধারণকে ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে সচেতন করেন। এছাড়া ডিএনসিসির প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকতা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. জোবায়দুর রহমান এবং উপ-প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকতা লে. কর্নেল মো. গোলাম মোস্তফা সারওয়ার কয়েকটি অঞ্চল পরিদর্শন করেন।

After Related Post