৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ২৫শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে ধরে নিয়ে হত্যার দায়ে ২ জনের যাবজ্জীবনগৃহবধূকে ধর্ষণচেষ্টা, সাবেক আ’লীগ নেতার গোপনাঙ্গ কেটে হত্যাপ্রতারণা করে হাতিয়েছেন ৬ কোটি টাকা, গড়েছেন দোকান-ফ্ল্যাট ব্যবসাকুমিল্লায় ফেন্সিডিলসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতারকুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়ায় বিপদজনক হয়ে উঠছে সড়কে দাপিয়ে বেড়ানো অটোরিকশাকুমিল্লা বুড়িচংয়ে রাইস ট্রান্সপ্লান্টারে চারা রোপণ,কমে আসছে সময় ও খরচবুধবার এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশনোবিপ্রবির ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রারের পদত্যাগসময় টিভির বার্তা প্রধাণের বিরুদ্ধে মামলার প্রতিবাদে কুমিল্লায় মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশকুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে মহাসড়কের পাশ থেকে প্রতিবন্ধির মরদেহ উদ্ধার

বৃটেনের সঙ্গে ফ্লাইট বন্ধ, কপাল পুড়ছে ইউরোপিয়ান বাংলাদেশিদের

১৩৬
header

বৃটেনে গত নভেম্বর মাসে ছিলো চার সপ্তাহের লকডাউন। এরপর সব কিছু ছিলো ঠিকটাক। প্রস্তুতি চলছিলো ক্রিসমাস পালন ও ইউরোপ থেকে ব্রিটেনে আসার। হঠাত এ মাসের শুরুতে মাহামারি আকার ধারণ করে ভাইরাসের নতুন স্ট্রেইন।

প্রতিদিন বাড়তে থাকে করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা। এমন খবরে ইউরোপসহ বিশ্বের প্রায় ৪০ টিরও বেশি দেশ গত রবিবার থেকে বৃটেনের সাথে সকল ধরণের ফ্লাইট বন্ধ করে দেয়। বর্তমানে দেশটির সাথে ফ্লাইট বন্ধ থাকায় কপাল পুড়েছে বাংলাদেশিদের। শুধু বাংলাদেশি নয়,পাকিস্থান, ভারত, শ্রীলংকা, মালদ্বীপসহ বিভিন্ন দেশের হাজার হাজার ইউরোপিয়ান নাগরিকদের।

আগামী ৩১শে ডিসেম্বরের আগে ফ্লাইট চালু না হলে তাদের বৃটেনে স্থায়ী হওয়ার আশা অপূর্ণ থেকে যাবে। নাগরিকত্ব নেয়ার পাশাপাশি সন্তানদের উচ্চশিক্ষায় শিক্ষিত করার স্বপ্নও ভেঙ্গে চুরমার হওয়ার পথে।

এদিকে,আর মাত্র ছয় দিন পর ইউরোপীয় ইউনিয়ন নাগরিকদের বৃটেনে স্থায়ী হওয়ার সুযোগ শেষ হচ্ছে। ফ্লাইট চালুর আশাও দেখা যাচ্ছে না। এর মধ্যে ৩১শে ডিসেম্বরের ভিতরে আবেদকারীরা বৃটেনে অনির্দিষ্টকালের জন্য বসবাস ও কাজ অধিকার পাবেন। ৩১শে ডিসেম্বর থেকে দেশটি আনুষ্ঠানিকভাবে ইউরোপ থেকে আলাদা হয়েছে যাবে। অচলাবস্থার পর বার বার সময় বৃদ্ধি করে অবশেষে ব্রেক্সিট বাণিজ্য চুক্তিতে পৌঁছাতে সক্ষম হয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও বৃটেন।

অপরদিকে, যে সকল ইউরোপীয় নাগরিক দুই সপ্তাহ আগে স্বপ্নের দেশ বৃটেনে এসেছেন তারাও বেকাদায় পড়েছেন। কারণ দেশটিতে এখন টিয়ার-৪ লকডাউন সমতুল্য বিধিনিষেধ জারি রয়েছে। যার কারণে বেশীরভাগ সরকারি কাজ এখন সম্পাদন হয় ঘর থেকে। করোনার কারণে সরকারি সকল সার্ভিস চলছে ধীরগতিতে। এই মহামারিতে বৃটেন এখন ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছে। যার ফলে দেশটিতে কাজ পাওয়া মুসকিল হয়ে পড়েছে।

After Related Post