১৮ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ৩রা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
কুমিল্লা পুলিশ লাইন্স লাইব্র্রেরী উদ্বোধন করেনঃ এমপি বাহারলালমাইয়ে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে উপজেলা ছাত্রলীগের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিতবিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণঃ অশ্লীল ছবি ধারণ করে চাঁদা আদায়, প্রেমিকসহ গ্রেফতার ২নোয়াখালীতে ভেঙে পড়ল নির্মাণাধীন বিদ্যালয়ের ছাদকুমিল্লার মুরাদনগরে জাতীয় শোক দিবসে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিতবাসার কাচের জানালায় ও প্লাস্টিকের বোতলে প্রকৃতির সব নান্দনিক দৃশ্যকুমিল্লার আমতলী থেকে ২৪ কেজি গাঁজাসহ ২ মাদক কারবারি আটককুমিল্লার ক্যান্টনমেন্ট থেকে গাঁজাসহ ০৩ জন গ্রেফতারচক্রান্তকারীরা চেতনা নষ্ট করার চেষ্টা করছেঃ এমপি বাহারনবজাতক ছিনিয়ে নেওয়ার হুমকি, তৃতীয় লিঙ্গের ৪ জন কারাগারে

ফুটবল চুরির অভিযোগে ৪ শিশু শিক্ষার্থীকে অমানবিক নির্যাতন

নগর বাংলা২৪ ডট কম:
২০
header

নগরবাংলা নিউজ ডেস্ক।।

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় বিদ্যালয়ের ফুটবল চুরির অভিযোগ তুলে ৪ শিক্ষার্থীকে পিঠিয়ে আহত করার অভিযোগ উঠেছে প্রধান শিক্ষক আসাদুজ্জামান লাভলুর বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় অভিভাবকরা বিদ্যালয় ঘেরাও করলে তোপের মুখে পড়ে পালিয়ে যান ওই প্রধান শিক্ষক।

বুধবার (৩ আগস্ট) সকালে উপজেলার পূর্ব বিছনদই ছকেল পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনাটি ঘটেছে।

আহত শিক্ষার্থীরা হলেন- ৪র্থ শ্রেণির শিক্ষার্থী শাকিব, কাওসার, বায়েজদ ও তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী সিয়াম। অভিযুক্ত আসাদুজ্জামান লাভলু পূর্ব বিছনদই ছকেল পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক।

জানা গেছে, প্রতিদিনের মতো মঙ্গলবার (২ আগস্ট) ছুটির পর বিদ্যালয়ের ফুটবল দিয়ে খেলাধুলা করেন কিছু শিক্ষার্থী। পরের দিন (বুধবার) প্রধান শিক্ষক আসাদুজ্জামান লাভলু ওই ফুটবলটি খুঁজে না পেয়ে চুরির অভিযোগ তুলে বাড়ি থেকে ডেকে এনে চার শিক্ষার্থীকে বেধড়ক মারধর করেন। খবর পেয়ে অভিভাবকরা বিদ্যালয় ঘেরাও করলে তোপের মুখে পড়ে ছিটকে পড়েন ওই প্রধান শিক্ষক।

কাওসারের নানী সবুরা বেগম বলেন, ‘ফুটবল চুরির অভিযোগ তুলে প্রধান শিক্ষক লাভলু আমার নাতিকে মারধর করে। খবর শুনে প্রধান শিক্ষকের নিকট বিষয়টি জানতে চাইলে ওই শিক্ষক আমার সঙ্গেও খারাপ আচরণ করে এবং আমাকে বিদ্যালয় থেকে চলে যেতে বলে।

স্থানীয় আরেক অভিভাবক মনোয়ারা বেগম একই কথা বলেন। তিনি জানান, এই প্রধান শিক্ষকের ব্যবহার খুব খারাপ। সবার সঙ্গে খারাপ আচরণ করেন।

কাওসারের ভাই শাহ আলম বলেন, ‘আমার ভাই চোর নয়, সে মেধাবী শিক্ষার্থী। কিন্তু প্রধান শিক্ষক চুরির অভিযোগ তুলে তাকে মারধর করছে। তিনি কাজটি ঠিক করে নাই। আমরা এই প্রধান শিক্ষকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।

অভিযোগের বিষয়ে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক আসাদুজ্জামান লাভলু বলেন, ‘এরা প্রায়ই বিদ্যালয়ের কিছু না কিছু চুরি করে। তাই একটু শাসন করা হয়েছে। তবে আজকে একটু মারধর করা বেশি হয়েছে।

এবিষয়ে হাতীবান্ধা উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা (এটিও) বেলাল হোসেন বলেন, ‘প্রধান শিক্ষককে বলে দিবো তিনি আপনাদের সঙ্গে দেখা করে খরচাপাতি দেবে এখন।

হাতীবান্ধা উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাজির হোসেন বলেন, ‘অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ওই প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

After Related Post