১৮ই জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ৪ঠা মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

নিউইয়র্কে বিজয়ের ৫০ বছর উদযাপন

নগর বাংলা২৪ ডট কম:
header

নগরবাংলা নিউজ ডেস্ক ||

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে বাংলাদেশের ৫০তম বিজয় দিবস ও ‘নারায়ণগঞ্জ ডিস্ট্রিক্ট অ্যাসোসিয়েশন অফ নর্থ আমেরিকা’র ৩২ বছর পূর্তি উদযাপিত হয়েছে। এটাই এ বছরের প্রথম বিজয় দিবস অনুষ্ঠান। ৩ ডিসেম্বর রাতে জ্যাকসন হাইটসের নবান্ন পার্টি সেন্টারে এ উপক্ষে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। প্রবাসী নারায়ণগঞ্জবাসী এবং কমিউনিটির সদস্যরা এতে অংশ নেন। অনুষ্ঠানটি পরিণত হয় প্রীতি-সম্মিলনে।

নারায়ণগঞ্জ ডিস্ট্রিক্ট অ্যাসোসিয়েশন অফ নর্থ আমেরিকার (ইনক) আহ্বায়ক কমিটির আহ্বায়ক নির্মল পালের সভাপতিত্বে এবং সংগঠনের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান সেলিমের সভা পরিচালনা ও উপস্থাপনায় সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ সোসাইটি নিউইয়র্ক’র সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমীন সিদ্দিকী, সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা কমিটির কোষাধ্যক্ষ নুরুজ্জামান মিয়া মন্টু, সংগঠনের সাবেক সভাপতি ও বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. মতিউর রহমান, আহ্বায়ক কমিটির যুগ্ম-আহ্বায়ক আরশাদুল বারী আসাদ, সংগঠনের সাবেক সভাপতি ও যুগ্ম-আহ্বায়ক মোহাম্মদ মোহসীন, সংগঠনের সাবেক সভাপতি অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম ও নূর বাবুল। এছাড়া শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন শিশু বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক শান্তা পাল, লেখক ও সাংবাদিক দর্পণ কবীর এবং মোস্তফা জামাল টিটো।

বক্তারা বলেন, অনৈক্য সৃষ্টিকারীরা কখনো সফল হয় না। বাংলাদেশের মানুষের মধ্যেও পাক শাসকরা অনৈক্য সৃষ্টি করতে চেয়েছিল। দমন করতে চেয়েছিল সাধারণ মানুষকে। ঐ পাক শোষকরা সফল হয়নি। বাংলাদেশের মানুষ ঐক্যবদ্ধ ছিল বলে সশস্ত্র সংগ্রামের মধ্য দিয়ে ছিনিয়ে এনেছিল স্বাধীনতা। ঐক্যবদ্ধ থাকার বিকল্প নেই। বিশেষ করে প্রবাস জীবনে বিরোধ, বিদ্বেষ, পরনিন্দা, অপপ্রচার করা অশুভ লক্ষণ।

বক্তারা বিশ্বব্যাপী করোনা মহামারিতে প্রাণহানির কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে বলেন, আমাদের সবসময় নিজেদের সুস্থ রাখার প্রতি বিশেষ সতর্ক থাকা উচিত।

অনুষ্ঠানের শুরুতে বাংলাদেশ এবং যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হয়।

এ সময় বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. মতিউর রহমান মুক্তিযুদ্ধে নারায়ণগঞ্জের অবস্থার কথা তুলে ধরে বলেন, ২৫ মার্চ কালরাতে পাকিস্তানি বাহিনী হামলা এবং গণহত্যা চালালে নারায়ণগঞ্জের মানুষ বিক্ষোভে ফেটে পড়েন। পাক সেনাদের সমরযান প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি ২৭ মার্চ পর্যন্ত।

অনুষ্ঠাদের দ্বিতীয় পর্যায়ে ছিল মনোজ্ঞা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এতে সংগীত পরিবেশন করেন কৃষ্ণা তিথি এবং শাহ মাহবুব।

অনুষ্ঠান উপলক্ষে দর্পণ কবীরের সম্পাদনায় ‘নারায়ণগঞ্জ’ নামে একটি ম্যাগাজিন বের করা হয়।

After Related Post