১৪ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ৩০শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে রাখতে প্রধানমন্ত্রী দিনরাত পরিশ্রম করছেন

নগর বাংলা২৪ ডট কম:
header

নগরবাংলা নিউজ ডেস্ক।।

দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে রাখতে প্রধানমন্ত্রী দিনরাত পরিশ্রম করছেন, দেশে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে রাখতে এবং সাধারণ মানুষকে স্বস্তি দিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দিনরাত অক্লান্ত পরিশ্রম করছেন বলে জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন।

শুক্রবার (১৮ মার্চ) বেলা সাড়ে ১১টায় পুরান ঢাকার বংশালে সুরিটোলা সরকারি মডেল বিদ্যালয় মাঠে এক খাদ্যসামগ্রী বিতরণ কর্মসূচির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ কথা জানান তিনি। ‘অসহায় ও দরিদ্র পরিবারে মাঝে নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী বিতরণ’ নামে এ কর্মসূচির আয়োজন করে মেয়র মোহাম্মদ হানিফ মেমোরিয়াল ফাউন্ডেশন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মোহাম্মদ সাঈদ খোকন বলেন, ‘করোনা মহামারি সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছিল। এখন কিছুটা কমে আসছে। এ দীর্ঘ দুটি বছর করোনার ছোবলে সারা বিশ্বের অর্থনীতি মারাত্মক ক্ষতি হয়েছে। খাদ্য সংকট দেখা দিয়েছে। এর প্রভাব কম বেশি আমাদের দেশে লেগেছে। এ অবস্থা থেকে সাধারণ মানুষকে মুক্তি দিতে আমাদের প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা দিন রাত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন।

তিনি বলেন, ‘এখন বিশ্বের অন্যান্য দেশে খাদ্যমূল্য বাড়ায় আমাদের দেশেও দাম বেড়েছে। এ অবস্থা থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার জন্য সরকার বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছে। বিভিন্ন পণ্য থেকে ভ্যাট টেক্স মওকুফ করছে। বাজার ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। এভাবে সরকার প্রধানের নির্দেশে সবকিছু বাস্তবায়ন হচ্ছে। কিন্তু সরকারের একার পক্ষে এই কাজটি আরও দুরূহ হয়ে পড়ে, যদি না আমরা সমাজের স্বচ্ছল মানুষ এ কাজে সম্পৃক্ত না হই। তাই আজকে মেয়র মোহাম্মদ হানিফ মেমোরিয়াল ফাউন্ডেশন পুরান ঢাকার ৩০টি ওয়ার্ডে এ খাদ্য সহায়তা দেওয়ার উদ্যোগ হাতে নিয়েছে। শবে বরাত থেকে শবে কদর পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে।

ব্যবসায়ী সমাজের প্রতি আহ্বান জানিয়ে সাঈদ খোকন বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গরিব-দুঃখি মানুষের পাশে থাকার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন। তার আহ্বানে সাড়া দিয়ে আমি আমাদের যে সব স্বচ্ছল ব্যবসায়ী ও ব্যক্তিরা রয়েছেন তাদের আহ্বান জানাবো, আপনারা সবাই সামর্থ্য অনুযায়ী অসহায় দরিদ্র ও দুঃখি মানুষের পাশে দাঁড়ান। তাহলে দুস্থ অসহায় মানুষের কষ্ট লাঘব হবে। দ্রব্যমূল্য অচিরেই মানুষের নাগালের মধ্যে চলে আসবে। আমার একটা শান্তিপূর্ণ সমাজ ব্যবস্থায় বাস করতে পারব।

মেয়র মোহাম্মদ হানিফ মেমোরিয়াল ফাউন্ডেশন একটি অরাজনৈতিক জনকল্যাণ প্রতিষ্ঠান উল্লেখ করে সাঈদ খোকন বলেন, ‘এই প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে দীর্ঘদিন ধরে মানুষকে সেবা দিয়ে আসছি। আপনারা জানেন, আমি শহরের নির্বাচিত মেয়র ছিলাম। আমি মেয়র থাকা অবস্থায় এই শহরের মানুষের জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করে গেছি। তাদের সুখে দুঃখে পাশে থাকার। এ শহরে বহু জনকল্যাণ কাজ করেছি। আমার প্রয়াত পিতা এ শহরের নির্বাচিত মেয়র মোহাম্মদ হানিফ, তিনিও ঢাকার মানুষের জন্য অনেক করে গেছেন। তার সারাটি জীবন আপনাদের সঙ্গে জনকল্যাণমূলক কাজ করেছেন।

সাঈদ খোকন বলেন, ‘আমি আমার মেয়াদ শেষ সময়ে বলেছিলাম, আমি মেয়র থাকি না থাকি আপনাদের সঙ্গে থাকব, পাশে থাকব। আমি আমার প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী আমার সামর্থ্য অনুযায়ী আপনাদের পাশে দাঁড়িয়েছি। এ করোনার সময়ে আমাদের এই সংগঠন মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় আমরা পুরান ঢাকার ২০ হাজার মানুষকে চোখের চিকিৎসা সেবা দিয়েছি। পাঁচ শতাধিক মানুষের চোখের অপারেশন করিয়েছি। হাজার হাজার মানুষের মাঝে খাদ্য সহায়তা করেছি। ভবিষ্যতেও জনগণের পাশে থাকব।

তিনি বলেন, খাদ্য সহায়তা কর্মসূচির আওতায় আমরা ছয় হাজার মানুষকে সহায়তা করবো। যাতে তারা রমজানে নির্বিঘ্নে সংসার চালাতে পারেন, ইবাদত করতে পারেন।

After Related Post