৩রা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ২০শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় মৃত্যু দন্ডাদেশ প্রাপ্ত পলাতক আসামি আব্দুল মজিদ গ্রেফতারকুমিল্লার নতুন সিভিল সার্জন ডাঃ নাছিমা আকতারমুরাদনগরে কৃষক খোকন মিয়া হত্যার প্রধান আসামী কারাগারে মো. হাবিবুর রহমানকুবিতে নেত্রকোনা এসোসিয়েশনের নবীন বরণ ও প্রবীণদের বিদায় অনুষ্ঠিতনোয়াখালীতে পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার নারীদেশের প্রথম পাতালরেল নির্মাণের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রীকুমিল্লার হোমনায় দড়িচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণকুমিল্লার হোমনায় ফেন্সিডিল ও প্রাইভেটকারসহ দুই মাদক কারবারি আটককুমিল্লার হোমনায় শিক্ষার্থীদের মাঝে শীত বস্ত্র বিতরণ করেন মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংককুমিল্লার হোমনায় উপজেলা প্রশাসন পাবলিক লাইব্রেরি উদ্বোধন

খোঁজ নিতে অসুস্থ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের বাড়িতে ডিসি

৮৪
header

খোঁজ-খবর নিতে অসুস্থ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের বাড়িতে গেলেন নোয়াখালীর জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোহাম্মদ খোরশেদ আলম খাঁন। এ সময় তিনি জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে দুজন বীর মুক্তিযোদ্ধার হাতে ফুল ও উপহার সামগ্রী তুলে দেন। পাশাপাশি একজনকে দেন অনুদানও।

বৃহস্পতিবার (২৫ মার্চ) দুপুরে নিজ কার্যালয় থেকে সহকর্মীদেরকে সঙ্গে নিয়ে সদর উপজেলার শ্রীপুর গ্রামে বীর মুক্তিযোদ্ধা কামাল উদ্দিনের বাড়িতে যান জেলা প্রশাসক।

মুক্তিযোদ্ধা সংসদ নোয়াখালী সদর উপজেলা ইউনিটের সাবেক কমান্ডার কামাল উদ্দিন শারীরিক অসুস্থতার কারণে গত কয়েকদিন চলাফেরা করতে পরছিলেন না। খবর পেয়ে দেখতে যান জেলা প্রশাসক। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ফুল ও উপহার সামগ্রী তার হাতে তুলে দেন। কামাল উদ্দিনের চিকিৎসার জন্য ৫০ হাজার টাকা আর্থিক অনুদানও দেন তিনি।

এরপর জেলা প্রশাসক একই এলাকার বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. সেলিম ও আবদুল খালেকের সঙ্গে দেখা করেন। এ সময় তিনি গেরিলা যোদ্ধা মো. সেলিমের হাতে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ফুল ও উপহার সামগ্রী তুলে দেন।

পরে বীর মুক্তিযোদ্ধা সাবেক নৌ কমান্ডার আবদুল খালেকের পরিবারকে স্বাধীনতা দিবসে জেলা প্রশাসন আয়োজিত অনুষ্ঠানের নিমন্ত্রণ জানান।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম খাঁন জানান, মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। স্বাধীনতার অর্জন ও এর অর্ধশতাব্দী পর জাতির এই বীর সন্তানদের অধিকাংশই বয়সের ভারে ন্যুজ। এ কারণে অনেকে এ অনুষ্ঠানে যোগদান করতে পারছেন না। তাই অসুস্থ এসব বীর মুক্তিযোদ্ধাদের বাড়িতে গিয়ে তাদের খোঁজ খবর নেয়া আমাদের নৈতিক দায়িত্ব ও কর্তব্য।

After Related Post