৮ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২৪শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
বঙ্গমাতার সমাধিতে তাপসের শ্রদ্ধামানবতাবিরোধী অপরাধে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি ৫ বছর পর গ্রেফতারবঙ্গমাতার জীবনাদর্শ নারীদের অনুসরণ করতে বললেন প্রধানমন্ত্রীস্কুলছাত্রের বিরুদ্ধে কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগবঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব পদক পেলেন ৫ নারীবঙ্গমাতার জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে কুমিল্লায় শিক্ষাবোর্ডের বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালনকুমিল্লায় ব্ল্যাকমেইলিংয়ের অভিযোগে দুই যুবককে আটককুমিল্লায় তেল প‌রিমা‌পে কারচূ‌পি; দুই ফি‌লিং স্টেশনকে দেড় লাখ টাকা জরিমানাকুমিল্লায় ১৪৭ বোতল ফেন্সিডিলসহ এক মাদক কারবারি আটকজ্বালানি ও সারের দাম বৃদ্ধি উৎপাদনে প্রভাব ফেলবে নাঃ কুমিল্লায় কৃষিমন্ত্রী

কুমিল্লার দাউদকান্দিতে পল্লী চিকিৎসকের দেয়া ওষুধ খেয়ে ঝলসে গেছে শিশুর শরীর

নগর বাংলা২৪ ডট কম:
১৫
header

নেকবর হোসেন।।

কুমিল্লার দাউদকান্দিতে এক পল্লী চিকিৎসকের দেয়া ওষুধ খেয়ে ঝলসে গেছে পাঁচ মাস বয়সী শিশুর পুরো শরীর। এ ঘটনায় বুধবার পল্লী চিকিৎসক দীপক চন্দ্র নন্দীর নামে উপজেলা স্বাস্থ কর্মকর্তার নিকট লিখিত অভিযোগ করেছেন শিশুটির চাচা ফিরোজ শিকদার।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বিটেস্বর ইউনিয়নের বীরবাগগোয়ালী গ্রামের প্রবাসী স্ত্রী সাহারা আক্তার তার পাঁচ মাস বয়সী শিশু আবরার হোসেন অসুস্থ্য হলে গত শনিবার স্থানীয় নৈয়ার বাজারের নন্দী ফার্মেসীতে নিয়ে যান। ফার্মেসীর মালিক পল্লী চিকিৎসক দীপক চন্দ্র নন্দীর দেয়া শনিবারের ওষুধে কাজ না করায় পরদিন রবিবার আবার সেখানে নিয়ে যান। রবিবারের দেয়া ওষুধ খেয়ে শিশুটির পুরো শরীর জ¦লসে যায়। বর্তমানে শিশুটি ঢাকার মাতুয়াইল শিশু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

শিশুটির মা সাহারা আক্তার বলেন, কোন মানুষ আগুনে পুড়লে যেমন হয়, দীপক চন্দ্র নন্দী ডাক্তারের দেয়া ওষুধ খেয়ে আমার বাচ্চার অবস্থা এখন তেমন হয়েছে। কান্না জড়িত কন্ঠে তিনি বলেন, এখন আমার বাচ্চা সারাদিনে একবারও চোখ খোলে না।

পল্লী চিকিৎসক দীপক চন্দ্র নন্দী বলেন, আবহাওয়া পরিবর্তনের কারনে গরমে শিশুটির শরীরে ছোট ছোট গোটার মতো হয়েছে। প্রথম দিনের ওষুধে ভালো না হওয়ায় এ্যান্টিবায়োটিক ওষুধ দিয়েছিলাম।

দাউদকান্দি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল কর্মকর্তা ডাঃ হাবিবুর রহমান বলেন, কোন পল্লী চিকিৎসক এ্যান্টিবায়োটিক ওষুধ লিখতে পারে না। ওষুধের পাওয়ারে শিশুটির পুরো শরীর জ¦লসে গেছে। আমি দেখে উন্নত চিকিৎসার জন্য মাতুয়াইল শিশু হাসপাতালে পাঠিয়েছি।

দাউদকান্দি উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ তৌহিদ আল হাসান বলেন, আমি অফিসিয়াল কাজে এলাকার বাইরে আছি। অভিযোগটি দেখে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

After Related Post